টেনশন দূর করার উপায় | কিভাবে টেনশন দূর করা যায়

টেনশন দূর করার উপায় | কিভাবে টেনশন দূর করা যায়

টেনশন দূর করার উপায় 

প্রিয় পাঠকবৃন্দ জীবন যতক্ষণ থাকবে ততক্ষণ সমস্যা ও থাকবে। একটার পর একটা সমস্যা আসতেই থাকবে। এমনটা কখনোই ভাববে না যে, একটা সমস্যা চলে গেলে আরেকটা সমস্যা আসবে না. আর তখন দেখবেন আরেকটা সমস্যা তৈরি হয়ে আছে। তাই সমস্যা বা দুশ্চিন্তা ছিল আছে এবং থাকবে। তাই জীবনে কিসের জন্য বসে বসে এত চিন্তা করতেছেন। টেনশন নিজে করতেছেন এবং অন্য কেউ দিচ্ছেন। তাই আসুন আজকে আমরা চেষ্টা করব, কিভাবে টেনশন দূর করা যায়

    টেনশন বা দুশ্চিন্তে একটি স্বাভাবিক মানসিক অবস্থা। তবে অতিরিক্ত টেনশন বা দুশ্চিন্তা মানসিক ও শারীরিক স্বাস্থ্যের জন্য অনেক ক্ষতিকর। টেনশনের কারণে মাথাব্যথা, ঘুমের সমস্যা, হৃদরোগ, উচ্চ রক্তচাপ, ডায়াবেটিস ইত্যাদির সমস্যা দেখা দিতে পারে। তাই আমাদের টেনশন দূর করা অনেক জরুরী। আর এজন্যই আজকের পোস্টে আমরা জানার চেষ্টা করব,টেনশন বা দুশ্চিন্তা দূর করার উপায় সম্পর্কে।

    টেনশন দূর করার উপায় 

    আমরা নিচে টেনশন দূর করার কতগুলো উপায় শেয়ার করবো। যেগুলো মানলে এবং পালন করলে আসা করি, আপনি টেনশন নামক রোগ থেকে মুক্তি পেতে পারেন। তাই দেরি না করে আমরা সেগুলো জানার চেষ্টা করি। 

    শ্বাস-প্রশ্বাসের ব্যায়াম 

    টেনশন কমানোর ১ম উপায় হলো শ্বাস-প্রশ্বাসের ব্যায়াম। এটি দুশ্চিন্তা বা টেনশন কমাতে অত্যন্ত কার্যকর। ধীরে ধীরে এবং গভীরভাবে শ্বাস নিন এবং ছেড়ে দিন। এতে আপনার শরীর ও মন শান্ত হবে এবং টেনশন অনেকখানি কমে যাবে।

    👉সবার আগে পিডিএফ লিংক ও শিক্ষামূলক তথ্য জানতে Google News | Telegram Twitter ফলো করুন। ধন্যবাদ👈

    প্রকৃতির সান্নিধ্য 

    টেনশন দূর করার দুই নাম্বার টিপস হলো প্রকৃতির সান্নিধ্য। প্রকৃতির সান্নিধ্য দুশ্চিন্তা কমাতে অনেকখানি সাহায্য করে। প্রকৃতির মাঝে ঘুরে বেড়ানো, গাছের ছায়াতলে বসে থাকা, গল্প করা এবং পাখির ডাক শোনা, সকালবেলার মিষ্টি রোদ পোহানো ইত্যাদি আপনার মনকে অনেক আনন্দিত করবে এবং টেনশন কমাতে সহায়তা করবে। 

    প্রিয়জনের সাথে সময় কাটানো 

    অতিরিক্ত টেনশন বা দুশ্চিন্তা দূর করার অন্যতম মাধ্যম হলো প্রিয়জনদের সাথে সময় কাটানো। তাদের সাথে কথা বলা, গল্প করা, সুখ দুঃখ শেয়ার করা। 

    ক্ষোভ ঝেড়ে ফেলুন 

    মনের মধ্যে ক্ষোভ বেঁধে রাখার অভ্যাস কখনোই হৃদযন্তের জন্য মঙ্গল বয়ে আনতে পারে না। নিউরোসাইন্স এর এক গবেষণায় দেখা গিয়েছে, যে ক্ষমা করার পরিবর্তে ক্ষোভ জমা করে রাখলে। মানসিক চাপ দিন দিন বেড়ে যায় এবং সে সঙ্গে হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার হার অনেক বাড়তে থাকে। তাই আপনি যদি নিজেকে টেনশন থেকে মুক্ত রাখতে চান, তাহলে অবশ্যই অভিযোগ করা অথবা হিংসা করা বাদ দিয়ে দিন। এতে আপনার শরীরের জন্য ভালো হবে। রাসূল সাঃ বলেন, প্রতিশোধ নেয়ার চেয়ে ক্ষমা করে দেওয়া অনেক উত্তম। আল হাদিস 

    নিজেকে ব্যস্ত রাখুন 

    দুশ্চিন্তাকে মাথা থেকে দূরে রাখতে হলে নিজেকে সব সময় ব্যস্ত রাখুন। আপনার মস্তিষ্ক ও হাত ব্যস্ত থাকলে, আপনার দুশ্চিন্তা আসবেনা। তাই সবসময় নিজেকে কাজের মধ্যে ব্যাস্ত রাখুন। বাংলায় একটি প্রবাদ আছে, অলস মস্তিস্ক শয়তানের কারখানা। আপনি নিজেকে কাজের মধ্যে ব্যাস্ত না রেখে যদি শুয়ে, বসে সময় কাটিয়ে দিন। তাহলে দিন দিন হতাশা, টেনশন, দুশ্চিন্তা আপনাকে গিরে ফেলবে। তাই নিজেকে সবসময় কাজের মধ্যে ব্যাস্ত রাখুন। 

    প্রিয় কাজ করা 

    মানুষের কোন না কোন প্রিয় কাজকর্ম থাকে। যে কাজটি করলে সে আনন্দ পায় এবং তার মন ভালো থাকে, সে কাজকে বলা হয় প্রিয় কাজ। এজন্য টেনশন দূর করার জন্য প্রিয় কাজটি করা উচিত। কারণ প্রিয় কাজটি করলে আপনার মন শরীর ভালো থাকবে। যার কারণে আপনার মনে দুশ্চিন্তার বাসা বাঁধবে না। 

    ঘুমের পরিমাণ বাড়ানো 

    পর্যাপ্ত ঘুম মানুষের জীবনে অপরিহার্য। মানুষ যদি নিয়মিত পর্যাপ্ত ঘুম না যায়। তাহলে তার মন শরীর কোন কিছুই ভালো থাকে না। এজন্য হতাশা দুর্দশা থেকে মুক্ত পাওয়ার জন্য প্রতিদিন পর্যাপ্ত ঘুম দেওয়া প্রয়োজন। দৈনিক একজন মানুষের কমপক্ষে ৭ থেকে ৮ ঘন্টা ঘুমানো দরকার।

    খাদ্যাভ্যাসে পরিবর্তন আনা

    স্বাস্থ্যকর খাবার গ্রহণ টেনশন কমাতে সাহায্য করে। বেশি বেশি শাকসবজি, ফলমূল, ওটস, দুধ, ডিম ইত্যাদি খাওয়া উচিত। 

    অতিরিক্ত চাপমুক্ত থাকা

    অতিরিক্ত চাপ নেওয়া থেকে বিরত থাকুন। যা করার তা করুন এবং যা করার নেই তা নিয়ে চিন্তা করবেন না। এতে আপনার অনেক উপকার হবে।

    টেনশন দূর করার উপায় | কিভাবে টেনশন দূর করা যায়

    সর্বশেষ কথা

    টেনশন দূর করতে উপরোক্ত উপায়গুলো অনুসরণ করতে পারেন। আসা করি, এই টিপস গুলোর মাধ্যমে আপনি টেনশন দূর করতে  পারবেন। তবে টেনশন যদি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যায়, তাহলে দ্রুত একজন মানসিক স্বাস্থ্য ডাক্তারের সাথে পরামর্শ করুন। 

    টেনশন দূর করার উপায় প্রশ্নোত্তর 

    ১. টেনশন কমাতে কি খাওয়া উচিত?

    উত্তরঃ টেনশন কমাতে যেসব খাবার খেতে হবে। তা হলো-- কমলালেবু, আঙুর, গাজর, পালংশাক, বাঁধাকপি, লেটুস পাতা, বাদাম, বীজ, ওটমিল, মাছ, চর্বিযুক্ত সামুদ্রিক খাবার, মাছ, মাংস, ডিম, দুগ্ধজাত খাবার, ডাল, ক্যামোমাইল, হলুদ, ল্যাভেন্ডার তেল ইত্যাদি 

    ২. টেনশনের ওষুধের নাম কি?

    উত্তরঃ  টেনশনের ওষুধের নাম হলো: 
    • সেলেক্টিভ সেরোটোনিন রিআপটেক ইনহিবিটর (SSRI)
    • সেরেটনিন-নোরেপিনেফ্রিন রিআপটেক ইনহিবিটর (SNRI)
    • ট্রাইসাইক্লিক অ্যান্টিডপ্রেসেন্ট (TCA)
    • বেঞ্জোডায়াজেপাইন (Benzodiazepine)
    • আলফা-2 অ্যাড্রেনার্জিক রিসেপ্টর অ্যাগোনিস্ট (Alpha-2 adrenergic receptor agonist)
    ট্যাগ:  টেনশন দূর করার উপায়, কিভাবে টেনশন দূর করা যায়

    0/Post a Comment/Comments

    Stay Conneted